Wednesday , October 16 2019
Breaking News
Home / Uncategorized / ক্যানসারে আক্রান্ত সংগীতশিল্পী এন্ড্রু কিশোর !

ক্যানসারে আক্রান্ত সংগীতশিল্পী এন্ড্রু কিশোর !

চলচ্চিত্রের গানের জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী এন্ড্রু কিশোরের শরীরে ক্যানসার ধরা পড়েছে। গতকাল শনিবার তাঁর ক্যানসারের চিকিৎসা শুরু হয়েছে সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালে। চিকিৎসার প্রথম ধাপে তাঁকে কেমোথেরাপি দেওয়া হচ্ছে। গত সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) উন্নত চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুরের উদ্দেশে ঢাকা ছাড়েন এন্ড্রু কিশোর। এসময় সঙ্গে ছিলেন তার স্ত্রী এবং সংগীতশিল্পী জাহাঙ্গীর সাঈদ। জাহাঙ্গীর সাঈদ ঢাকায় ফিরেছেন। তিনি বলেন, এন্ড্রু কিশোরের কিডনি ও হরমোনজনিত সমস্যা ছিল।

এ কারণে তার ওজন হ্রাসসহ বিভিন্ন শারীরিক সমস্যা দেখা দেয়। এড্রেনাল গ্লান্ড বড় হয়ে গেছে। পাশাপাশি তার আরেকটি সমস্যা হলো জ্বর। প্রতিদিন তার জ্বর আসায় চিকিৎসকেরা চিন্তিত ছিলেন। কেন এভাবে জ্বর আসছে, তার সমাধান খুঁজছেন চিকিৎসকেরা। এ ছাড়া তার শরীরের কিছু নমুনা বায়োপসির জন্য পাঠানো হয় ল্যাবে। সে রিপোর্টের ভিত্তিতে চিকিৎসকেরা নিশ্চিত হন এন্ড্রু কিশোর ক্যানসারের ভুগছেন। আজ রোববার সকালে (২২ সেপ্টেম্বর) চিত্রনায়ক ওমর সানি এন্ড্রু কিশোরের সঙ্গে দেখা করেছেন।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে তিনি লিখেছেন, ‘সিঙ্গাপুরে আসলাম দাদার সঙ্গে দেখা হবে না? এন্ড্রু কিশোর অনেক কথা বললেন। তার কেমো শুরু হয়েছে। সুস্থ হয়ে আমাদের মাঝে আসুন দাদা। সিঙ্গাপুরে যাওয়ার আগে ৮ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবনে এন্ড্রু কিশোরকে আমন্ত্রণ জানান। এ সময় তিনি এন্ড্রু কিশোরের শারীরিক সমস্যার খোঁজ নেন এবং তার হাতে ১০ লাখ টাকার চেক তুলে দেন।

জানা গেছে ইতিমধ্যে একটি বেসরকারি চ্যানেলের কর্তৃপক্ষ শিল্পীর চিকিৎসায় সহায়তায় আরও ১০ লাখ টাকা দিয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই প্রতিষ্ঠানের একজন কর্মকর্তা বলেন, ‘অনুদান নয়, আমরা প্রতিদান স্বরূপ এন্ড্রু কিশোরের বিপদের সময় পাশে থেকেছি। বাংলা গানে বিশেষ করে বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের গানে তার অবদান অসামান্য। আমাদের দায়িত্ব তিনি না চাইলেও তার পাশে থাকা। শিল্পীসমাজ নিজেদের উদ্যোগে তার চিকিৎসার সহায়তার তহবিল গঠনের কাজ করেছে।

‘মাদকবিক্রেতার বাড়ি চিহ্নিতকরণ একটি সামাজিক আন্দোলন’ স্টাফ করেসপন্ডেন্ট মাদকব্যবসায়ীদের বাড়ি চিহ্নিতে সাইনবোর্ড, ফেনীতে মাদক নির্মূলে ব্যতিক্রমী কার্যক্রম শুরু করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। এখন থেকে সীমান্তরক্ষী এ বাহিনীর হাতে কোনো ধরনের মাদকবিক্রেতা কিংবা মাদকসেবী আটক হলেই তার বাড়িতে নতুন নামকরণের সাইনবোর্ড ঝুলিয়ে দেওয়া হবে। আইন প্রয়োগের পাশাপাশি সামাজিক আন্দোলনের অংশ হিসেবে এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন ৪ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল মো. নাহিদুজ্জামান।

বিজিবি সূত্র জানায়, পরশুরামের সুবার বাজার এলাকায় ডিএম সাহেবনগর গ্রামের বাহার উদ্দিনের ছেলে মাদকবিক্রেতা ইদ্রিস আলীর টিনশেডের ঘর। সড়কের পাশে টিনের গেট। ওই বাড়ির ইদ্রিসের নেশা-পেশা মাদক বিক্রিই। শনিবার (২১ সেপ্টেম্বর) সকালে তার বাড়িতে ‘মাদক ব্যবসায়ীর বাড়ি’ লিখে চিহ্নিত করা হয়েছে। ৪ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল মো. নাহিদুজ্জামান জানান, মাদকের বিরুদ্ধে সরকার জিরো টলারেন্স।

আইন প্রয়োগের পাশাপাশি সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করতে এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। তিনি আরও জানান, সীমান্তবর্তী সদর উপজেলার ধর্মপুর, পরশুরাম, ফুলগাজী ও ছাগলনাইয়া ছাড়াও ফেনী শহরের মাদকবিক্রেতাদের তালিকা করা হয়েছে। এসব বিক্রেতার বাড়িও শনাক্ত করা হয়েছে। এখন থেকে বিজিবির হাতে মাদকবিক্রেতা আটক হলেই তার বাড়ি চিহ্নিত করে নামকরণ করা হবে।

About shomoy 24

Check Also

মেসির সঙ্গে ডিনারে বসা হয়নি, আক্ষেপ রোনালদোর!

মোনাকোর গ্রিমালদি ফোরামে কাল চ্যাম্পিয়নস লিগ ড্র ও উয়েফা বর্ষসেরা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন লিওনেল মেসি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *