Wednesday , October 16 2019
Breaking News
Home / Uncategorized / কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা নিয়ে জ্যাক মা ও এলন মাস্কের বিতর্ক!

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা নিয়ে জ্যাক মা ও এলন মাস্কের বিতর্ক!

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বা আর্টিফিশিয়াল ইনটেলিজেন্সের (এআই) ভবিষ্যৎ কোন দিকে যাবে? এর সম্ভাবনা বা ঝুঁকি কতটুকু? এ নিয়ে বিতর্ক হয়ে গেল প্রযুক্তি বিশ্বের অন্যতম দুই উদ্যোক্তা আলীবাবার জ্যাক মা ও টেসলার এলন মাস্কের মধ্যে। চীনের সাংহাইতে ওয়ার্ল্ড এআই সম্মেলনে (ডব্লিউএআইসি) ৪৫ মিনিট ধরে দুজন এআই বিষয়ে বিতর্ক করেন। সেখানে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ঝুঁকি ও সম্ভাবনা বিষয়ে দুজন ভিন্নমত পোষণ করেছেন। জ্যাক মা বলেছেন, তিনি এআই নিয়ে দারুণ আশাবাদী ছিলেন। তাঁদের মতো স্মার্ট ব্যক্তিদের এ নিয়ে ভয়ের কিছু নেই। জবাবে মাস্ক বলেন, প্রযুক্তি দ্রুত পরিবর্তন হচ্ছে এবং তা আমাদের বোঝার সক্ষমতার বাইরে চলে যাচ্ছে। অবশ্য, দুজন বিশ্বের সবচেয়ে বড় সমস্যা জনসংখ্যার পতন বিষয়টিতে একমত হয়েছেন।

বর্তমান বিশ্বে অন্যতম প্রভাবশালী প্রযুক্তি নেতৃত্ব হিসেবে পরিচিত এ দুই ব্যবসায়ী। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ব্যবসায়ী মাস্ক ডিজিটাল পেমেন্ট প্রতিষ্ঠান পেপ্যাল থেকে তাঁর সম্পদ গড়েছেন। এখন বৈদ্যুতিক গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান টেসলা, রকটে নির্মাতা প্রতিষ্ঠান স্পেসএক্স, টানেল পরিবহন ব্যবসা দ্য বোরিং কোম্পানির মতো প্রতিষ্ঠানের মালিক তিনি। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের সান ফ্রান্সিসকোভিত্তিক এআই গবেষণা প্রতিষ্ঠান ওপেন এআই প্রতিষ্ঠা করতে সাহায্য করেন। ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান আলীবাবার সহ-প্রতিষ্ঠাতা জ্যাক মা। বিশ্বের শীর্ষ ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের তকমা পেতে আমাজনের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছে আলীবাবা। এআই প্রযুক্তিতে বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ বিনিয়োগ করেছে আলীবাবা।

চীন যুক্তরাষ্ট্রকে টপকে ২০৩০ সালের মথ্যে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ক্ষেত্রে বিশ্বের নেতৃত্ব দেওয়ার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে। বিতর্কের সময় জ্যাক মা মূলত মেশিন লার্নিং (এমএল) কিভাবে ভালো কাজের শক্তি হিসেব কাজ করবে সে বিষয়টি তুলে ধরেন। মানুষ কীভাবে চিন্তা করে তার নতুন ধারণা দেবে এবং সাদরে গ্রহণযোগ্য হবে এ প্রযুক্তি। মানুষ যখন নিজেকেও আরও বেশি বুঝতে পারবে তখন বিশ্বকে আরও উন্নত করা যাবে। এআই নতুন ধরনের কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে সহায়তা করবে যাতে কম সময়ে সৃজনশীল কাজ করা যাবে।

জ্যাক মা বলেন, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার কল্যাণে মানুষকে সপ্তাহে তিন-চার দিন কাজ করলেই চলেব। এ সময় মানুষে আয়ু ১২০ বছর হয়ে যাবে। এ সময় অনেক কাজ আছে যা কেউ করতে চায় না। রোবটের মধ্যে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা যুক্ত করলে তা বয়স্ক ব্যক্তিদের দেখাশোনা করতে পারবে। তবে জ্যাক মার এ ধারণার বিরোধীতা করেন এলন মাস্ক। তাঁর মতে, এআইয়ের কারণে ব্যাপক বেকারত্ব সৃষ্টি হবে। এআই কাজ বলে কিছু রাখবে না। সম্ভবত মানুষের কাজ দাঁড়াবে এআই লেখা। এক সময় এআই নিজের সফটওয়্যার নিজেই লিখবে। মানব সভ্যতা ঝুঁকির মধ্যে পড়ে যাবে। টেসলার প্রধান নির্বাহী বলেন, ‘কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা মানুষের ওপর নিয়ন্ত্রণ নেবে।’ তবে, জ্যাক মা বলেন, ‘গত দুই বছর ধরে এ কথা শুনছি। তবে আমরা মতে এটা অসম্ভব।’

About shomoy 24

Check Also

ঋণ দিতে ব্রিফকেস নিয়ে ঢাকায় হাঁটছে বিদেশিরা স্টাফ করেসপন্ডেন্ট !

বক্তব্য দেন পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান।চট্টগ্রাম: বাংলাদেশকে ঋণ দিতে হাজার হাজার লোক ঢাকায় ব্রিফকেস …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *